প্রাকৃতিকভাবে গোলাপি ও কোমল ঠোঁটের জন্য

আমাদের ঠোঁটযুগল পুরো চেহারার সৌন্দর্য ধরে রাখে অনেকখানি। কম বেশি সবাই ঠোঁট রাঙ্গাতে লিপস্টিক, লিপটিন্ট অথবা লিপগ্লস ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু নিয়ম মত ঠোঁটের সঠিক পরিচর্যা না করলে আর কোনো লাভই হয় না, বরং ঠোঁটের অবস্থা দিনে দিনে করুণ হতে থাকে।


আমাদের অন্য যেকোনো বডি পার্টের চেয়ে ঠোঁটের উপরের আবরণ থাকে সবচেয়ে পাতলা। তাই খুব সহজেই ঠোঁট ফেটে যাওয়ার মত সমস্যার ভুক্তভুগি হতে হয় আমাদেরকে। এছাড়া, আমাদের ঠোঁটে সবচেয়ে কম পরিমান তৈলগ্রন্থি থাকায়, ঠোঁটে কোনোই প্রাকৃতিক প্রটেকটর থাকেনা। এজন্য, শুধুমাত্র শীতকালেই নয়, পুরো বছর ধরেই দেখা যায় ঠোঁট শুষ্ক ও ডিহাইড্রেটেড হয়ে নিষ্প্রাণ যায়। এছাড়া, অনেকেরই কমন সমস্যা ঠোঁটে কালচে দাগ পড়ে থাকে। ঠোঁটের এই কালো দাগ বিভিন্ন কারণে হতে পারে। তার মধ্যে কিছু হলো- সঠিকভাবে ঠোঁটের যত্ন না নেওয়া, ঠোঁটের মরা চামড়া তুলে না ফেলা, সঠিক মাত্রায় পানি না খাওয়া, ভিটামিন-বি এর অভাব দেখা দেওয়া। শুষ্ক আবহাওয়া, সুর্যের তাপ ও ঠান্ডা বাতাস থেকে তাই শুধু ত্বকই নয়, ঠোঁটও সুরক্ষিত রাখুন সিম্পল কিছু রুটিন মেনে,

নিয়মিত লিপবাম ব্যবহার

Mimtique Organic Lip balm এর বিটরুট ও ভ্যানিলা ঠোঁটকে প্রাকৃতিকভাবে গোলাপি করে

ঠোঁট ময়েশ্চারাইজড রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শুষ্ক ও ফেটে যাওয়া ঠোঁট এর সঠিক পরিচর্যার জন্য প্রতিদিন লিপবাম ব্যবহার করা একদম মাস্ট! যেহেতু আমাদের ঠোঁটের কোনো ন্যাচারাল প্রটেকটর লেয়ার থাকেনা, তাই অবশ্যই উচিত এমন লিপবাম ব্যবহার করা যা ঠোঁটের স্কিনকে এক্সট্রা ময়েশচারাইজড রাখবে। Mintique এর হ্যান্ডমেড অরগ্যানিক লিপবাম বিটরুট ও ভ্যানিলা বিনসের গুণাগুণ সমৃদ্ধ যা ঠোঁটের পিগমেন্টেশান ও কালচে ভাব দূর করে ঠোঁটকে রাখে কোমল ও মোলায়েম প্রথম ব্যবহার থেকেই। ঘুমের আগে অবশ্যই লিপবাম ব্যবহার করে ঘুমাবেন যেন সারারাত ভর আপনার ঠোটযুগল থাকে সর্বাধিক সুরক্ষিত।
Shop now: http://bit.ly/min_lipbalm

ঠোঁটেও দরকার স্ক্রাবিং

ঠোঁটের যত্নে যত কিছুই করি না কেন, স্ক্রাবিং এর কথা অনেক সময়ই ভুলে যাই । স্ক্রাবিং এমন একটি প্রোসেস যা স্কিন বা ঠোঁট সব ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ। লিপ স্ক্রাবার ঠোঁটকে এক্সফোলিয়েট করে তাই ঠোঁটের মরা চামড়া দূর হয়। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ ঠোঁটে  মৃতকোষের পড়ত জমে থাকলে লিপবাম ব্যবহার করলেও তা ঠোঁটের আর কোনো কাজে আসেনা। ঠোঁটকে অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিকভাবে আকর্ষণীয় করতে তাই অবশ্যই ভালো মানের লিপ স্ক্রাব ব্যবহার করতে হবে একদিন পর পর। Mintique এর স্ট্রবেরি লিপ স্ক্রাব দিয়ে অর্গানিক ভাবেই ঠোঁটের যত্ন নিতে পারবেন। স্ক্রাবটি শুধু যে ঠোঁটের ডেড সেল দূর করবে তাই-ই না, ঠোঁটকে দিবে গোলাপি আভা এবং করবে বেবি সফট।
Shop now: http://bit.ly/min_lip_scrub

লিপ ম্যাসাজ

ঠোঁটের সঠিক রিল্যাক্সেশনের জন্য প্রতিদিন ৫ মিনিট লিপ ম্যাসাজ করা খুবই কার্যকর। যেকোনো নারিশিং অয়েল দিয়ে ঠোঁট ম্যাসাজ করলে ব্লাড সার্কুলেশান যেমন ঠিক থাকবে তেমনি ঠোঁটও পাবে পর্যাপ্ত পুষ্টি। এক্ষেত্রে, Coconut Oil Care BD এর Extra Virgin Coconut Oil অথবা  Ribana Coconut Oil ব্যবহার করতে পারেন।

লিপস্টিক তুলতে ভুলবেন না যেন !

রিবানা মেকআপ রিমুভার সোপ দিয়ে ফুল কাভারেজ মেকআপও সহজেই তুলে ফেলতে পারবেন ঝামেলা ছাড়াই. http://bit.ly/ribana_makeup

মেকআপ লাভারদের একটি সাধারণ ভুল বাসায় ফিরে লিপস্টিক আর না তোলা। ঠোঁটের সবচেয়ে বড় ক্ষতি আমরা নিজের অজান্তে এভাবেই করে ফেলি। বেশিরভাগ লিপস্টিকে ক্ষতিকর লেড ও কেমিক্যালস থাকে, যা ঠোঁটের জন্য দীর্র্ঘমেয়াদি ক্ষতির  কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এছাড়া, ম্যাট লিপস্টিক ঠোঁটকে করে ফেলে অনেক বেশি ড্ৰাই। তাই বেশিক্ষণ ঠোঁটে লিপস্টিক রেখে দেওয়া কখনোই উচিত নয় এবং দিনশেষে অবশ্যই লিপস্টিক ঠোঁট থেকে তুলে ফেলতে হবে। এক্ষেত্রে, Fruiser অলিভ ওয়েল ব্যবহার করতে পারেন যা সহজেই ঠোঁট থেকে লিপস্টিকটি তুলে আনবে, সেই সাথে ঠোঁটকে রাখবে হাইড্রেটেড। এছাড়া, Ribana Makeup Remover Soap ও খুবই  কার্যকরী।

এভোকাডোর পুষ্টি সমৃদ্ধ Fruiser Olive Oil মেকআপ রিমুভার হিসাবে বেশ কার্যকর . http://bit.ly/sty_olive_oil

এছাড়াও, ঠোঁটের কোমলতা ধরে রাখতে বেশি বেশি পানি পান করে হাইড্রেটেড থাকতে হবে। অনেকের দাত দিয়ে ঠোঁটের চামড়া কামড়ানো এবং ঠোঁটে একটু পর পর হাত দেওয়ার মতো বদঅভ্যাস থাকে। ঠোঁটের পর্যাপ্ত যত্নের জন্য এই ব্যাপারগুলো ও অবশ্যই এড়িয়ে চলতে হবে। হ্যান্ডব্যাগেই রেখে দিতে পারেন পছন্দের লিপবামটি যেন ঠোঁট ময়েশ্চারাইশড করে নিতে পারেন যখন তখন।  লিপ কেয়ার নিয়ে তাহলে আর নয় খামখেয়ালীপনা ; স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বক ও চুলের সাথে সাথে আপনার ঠোঁটকেও রাখুন নরম ও কোমল।

Leave a Reply