অয়েস্টার মাশরুম দিয়ে তৈরি করুন ইয়াম্মি তিনটি ডিশ!

খাদ্যগুনে ভরপুর অয়েস্টার মাশরুম। কালিনারি ওয়ার্ল্ডে এর চাহিদাও রয়েছে ব্যাপক। কারন অয়েস্টার মাশরুম বেশ জুসি এবং মাংসল, ভিন্নধর্মী রেসিপির জন্য তাই বলা যায় আদর্শ! চলুন দেখে নেয়া যাক তিনটি সহজ ও সিম্পল অয়েস্টার মাশরুম ডিশ সম্পর্কে।

১। সটেড অয়েস্টার মাশরুম

যেকোনো Meal এর সাথে সাইড ডিশ হিসাবে খুবই পরিচিত সটেড অয়েস্টার মাশরুম। আর বানানো টাও একদম সিম্পল। রসুন কুচির সাথে গ্রিন অনিয়ন প্যানে হাল্কা আঁচে ভেজে নিন। এর সাথে অয়েস্টার মাশরুম ৩-৪ মিনিট অল্প অলিভ অয়েলে ভেজে নিলেই হয়ে যাবে প্যালিও ও গ্লুটেন মুক্ত সটেড অয়েস্টার মাশরুম। স্বাদ বৃদ্ধির জন্য সাথে এক চিমটি লবন ও গোল মরিচ গুঁড়ো দিয়ে নিতে পারেন। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, অ্যান্টি ক্যান্সার ও অ্যান্টি মাইক্রবিয়াল উপাদানে ভরপুর এই ডিশটি খেতে যেমন মজা হবে, তেমনি পুষ্টি গুণেও ভরপুর।

২। তেরিয়াকি অয়েস্টার মাশরুম

খুবই প্রচলিত চাইনিজ স্টাইলের একটি ডিশ হলো তেরিয়াকি অয়েস্টার মাশরুম। ক্যাস্ট আয়রনে করে চুলার গ্যাসেই বানিয়ে ফেলতে পারেন এটি। ভিতর থেকে ময়েস্ট এবং বাইরে থেকে ক্রিস্পি, এমন টেক্সচারের জন্য খুবই অল্প সময়ে হাই হিটে মাশরুম পিস গুলো ভাজতে হবে। আর ভাঁজা শেষে তেরিয়াকি সস উপরে মিশিয়ে দিলেই পাবেন অথেন্টিক ফ্লেভারের ইয়াম্মি তেরিয়াকি মাশরুম।

৩। অয়েস্টার মাশরুম ফ্রাই

নিরামিষ যারা পছন্দ করেন, তাদের জন্য বলা যায় এটি যেন একটি পারফেক্ট ডিশ। অয়েস্টার মাশরুমের সাইজ, বা ধরন আর মাংসল টেক্সচারের জন্য সাধারণ বিফ বা চিকেনের পরিবর্ততে অনেকেই এটা প্রেফার করেন। এই মাশরুম ফ্রাই করার জন্য খুব সাধারণ কিছু ইনগ্রেডিয়েন্ট লাগে যার মধ্যে অন্যতম বাটারমিল্ক। প্রথমেই মাশরুম গুলোকে বাটারমিল্কে ডুবিয়ে ন্তারপর ড্রাই ব্যাটারে গড়িয়ে নিতে হবে। ড্রাই ব্যাটার তৈরির জন্য আপনার স্বাদ অনুযায়ী স্পাইস ও ময়দা-ই যথেষ্ট। মাশরুম কোটিং এর জন্য এই একই প্রসেস দুইবার করুন, এবং ডুবো তেলে ভেজে ফেলুন! 

স্টাইলাইনে পাওয়া যাচ্ছে ফ্রেশ অয়েস্টার মাশরুম। হোয়াইট অয়েস্টার বা স্কাই/ ফিনিক্স অয়েস্টার, আপনার পছন্দেরটি বেঁছে নিন এবং তৈরি করে ফেলুন মজাদার এই ডিশগুলো।
লিংক –  https://styl.ws/OjSbJD